Wednesday , May 22 2019
Breaking News
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home / Prime News / যেভাবে দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে নৌকাডুবিতে প্রাণ গেল ৪০ জনের বেশি বাংলাদেশির

যেভাবে দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে নৌকাডুবিতে প্রাণ গেল ৪০ জনের বেশি বাংলাদেশির

লিবিয়া থেকে ছোট্ট নৌকায় চেপে খুবই বিপদংসকুল পথে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে পৌঁছানোর চেষ্টা করছিল তারা। সেই নৌকাডুবিতে যারা মারা গেছে, বলা হচ্ছে তাদের মধ্যে অন্তত ৪০ জন বাংলাদেশি। তিউনিসিয়ার একদল জেলে সাগর থেকে মোট ১৬ জনকে উদ্ধার করে। এদের মধ্যে ১৪ জনই বাংলাদেশি। এদের এখন রাখা হয়েছে তিউনিসিয়ার উপকূলীয় শহর- জারজিসের একটি আশ্রয় কেন্দ্রে। খবর বিবিসি বাংলার।

অনেক চেষ্টার পর বিবিসি বাংলা তিউনিসিয়ার রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির একজন কর্মকর্তা মঞ্জি স্লেমের মাধ্যমে এই বাংলাদেশিদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয়। টেলিফোনে আশ্রয় কেন্দ্রে থাকা দুজন বাংলাদেশি বিবিসির কাছে বর্ণনা করেছেন, কী ভয়ংকর অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়ে তাদের যেতে হয়েছে, কীভাবে সাগরে মৃত্যুর মুখ থেকে তারা ফিরে এসেছেন:

সিজুর আহমেদ, সিলেট

ঢাকা থেকে দুবাই। দুবাই থেকে ত্রিপলি। ছয় মাসে আগে যাত্রা শুরু করি। দালাল ধরে আসি। দালাল বলেছিল যে লিবিয়া থেকে লোকজন আবার ইটালি যাচ্ছে, তুমি কি যেতে চাও? বলেছিল, ওখানে লাইফ অনেক ভালো।

আমি জমি বন্ধক রেখে সাত লাখ টাকা জোগাড় করে এখানে আসি। আমার সঙ্গে আমার মামাতো ভাই এবং খালাতো ভাইও ছিল। ওরা সাগরে মারা গেছে আমার চোখের সামনে।

আমি দক্ষিণ আফ্রিকায় ছিলাম। সেখান থেকে বাংলাদেশে এসে বেকার হয়ে পড়ি। দক্ষিণ আফ্রিকায় থাকতে চাই নি। একদিন আমার চোখের সামনে আমার সামনের দোকানের লোক মারা গেল। ওর দোকানের মাল লুটপাট করে নিয়ে গেল। ভয়ে চলে আসলাম। লাইফে অনেক রিস্ক।

আহমেদ বিলাল: কোন রকমে প্রাণে বেঁচে গেছেন

সাগর পাড়ি দিতে যে কোন ঝুঁকি আছে, দালাল আমাদের সেটা বলে নাই। বলেছে, অনেক ভালো সুবিধা, অনেক ভালো লাইন হয়েছে। বলেছে জাহাজে করে একেবারে ইটালিতে পৌঁছে দেবে। কীসের জাহাজ? আমাদের অনেক কষ্ট দিয়েছে। তিন মাস রাখছে একটা রুমে, ৮২ জন বাঙ্গালি। একটা টয়লেট। আমাদের ঠিকমত খেতে দেয় না। তিনদিনে একদিন খাবার দেয়। মারধোর করে। গোসল করি নাই তিন মাস।

আমরা ছিলাম দেড়শো জন লোক। একটি মাছ ধরা ট্রলারে করে আমাদের মধ্য সাগরে নিয়ে যায়। সেখান থেকে ছোট নৌকায় তোলা হয়। দুইটা নৌকা ছিল। একটা নৌকা শুনেছি ইটালি চলে গেছে। একটা নৌকায় তোলা হয়েছিল ৬০ জন। আর আমাদের নৌকায় তুলেছিল ৮০ জনের ওপরে। ছোট নৌকাটি পাঁচ আঙ্গুল পানির উপর ভেসে ছিল। ঢেউ উঠার সঙ্গে সঙ্গে নৌকা উল্টে গেছে। এরপর আমরা সাগরের পানিতে আট ঘন্টা সাঁতার কেটেছি। যে নৌকাটি উল্টে যায়, সেটি ধরে আমরা ভেসে ছিলাম।

আমরা যে আশি জনের মতো ছিলাম, প্রতি পাঁচ মিনিটে যেন একজন করে লোক হারিয়ে যাচ্ছিল। এভাবে একজন একজন করে অনেক লোক হারালাম। আশি জন থেকে আমরা রইলাম আর অল্প কয়েকজন। সকাল হওয়ার পর দেখলাম আমরা মাত্র ১৪/১৫ জন লোক বেঁচে আছি। তখন হঠাৎ দেখি একটা মাছ ধরার ট্রলার। আমাদের মনে হলো আল্লাহ যেন আমাদের জন্য ফেরেশতা পাঠিয়েছে। আর যদি দশ মিনিট দেরি হতো আমরা সবাই মারা যেতাম। আমাদের হাত পা আর চলছিল না।

আমরা সবাই মিলে ‘হেল্প, হেল্প’ বলে চিৎকার করছিলাম। তারপর ওরা এসে আমাদের উদ্ধার করে।

আমি এখন ভাবছি, এখান থেকে দেশে ফিরে গিয়ে কি করবো? দেশে তো অনেক টাকা-পয়সা লোকসান করে এসেছি। পরিবারকে পথে বসিয়ে এসেছি। এখন কোন মুখে দেশে যাব।

মাহফুজ আহমেদ, গোলাপগঞ্জ, সিলেট

ডিসেম্বর মাসের ১২ তারিখে আমি রওনা দেই। বাংলাদেশ থেকে প্রথম দুবাই যাই। সেখান থেকে আম্মান। সেখান থেকে আবার যাই তুরস্ক। তারপর তুরস্ক থেকে লিবিয়ার ত্রিপলি। আমার আপন দুই ভাইও আমার সঙ্গে ছিল। আমরা দালালকে জনপ্রতি নয় লাখ টাকা করে দেই। আমার এই দুই ভাইকে বাঁচাতে পারিনি। ওরা মারা গেছে।

আমরা বুঝতে পারিনি এই পথে এত বিপদ। দালাল বলেছিল, মাছের জাহাজে করে সুন্দরভাবে আমাদের নিয়ে যাবে। আমরা অনেক টাকা খরচ করেছি। তিন ভাই মিলে ২৭ লাখ টাকা। জমি বিক্রি করে, আত্মীয়-স্বজনের কাছে থেকে এই টাকা জোগাড় করি। এখন তো এই ভুলের মাশুল তো আর দিতে পারবো না। এখন আমি দেশে চলে যেতে চাই।

প্রতি বছর বিপদজনকভাবে সাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার সময় পানিতে ডুবে মারা যাচ্ছে বহু মানুষ।

যে দালালের মাধ্যমে আমরা আসি, তাকে আগে থেকে চিনতাম না। সিলেটে সাইফুল নামে এক লোক, সে আমাদের পাঠিয়েছে। বাকী দালালরা লিবিয়ায়। এরা সবাই বাংলাদেশি। এরা লিবিয়ায় থাকে। একজন দালালের নাম রুম্মান। একজনের নাম রুবেল। আরেকজনের নাম রিপন। এদের বাড়ি নোয়াখালি। এই দালালদের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। তাদের ক্যাম্পেও আমরাছিলাম।

সেখানে আরও শ-দেড়শো বাংলাদেশি এখনো আছে। সিলেট, হবিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া, মাদারিপুর, ঢাকা- বিভিন্ন জায়গার লোক আছে সেখানে। এদের সঙ্গে আবার অন্যান্য দেশের দালালরাও ছিল। আমার ধারণা, যে পরিস্থিতির শিকার আমরা হয়েছি, কয়েক মাস পর এই বাংলাদেশিরাও সেরকম অবস্থায় পড়বে।

Check Also

জাতীয় পেকুয়ায় ধর্ষণের শিকার শিশুর আত্মহত্যার চেষ্টা

রোববার (১৯ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এরপর ধর্ষনের শিকার ওই শিশুর …

ফারাক্কা চুক্তির ২২ বছর পরও পানির অসম বণ্টন, বন্যার আভাস

জানুয়ারী মাস থেকে মে মাস পর্যন্ত চলা শুকনো মৌসুমে পাকশীর হার্ডিঞ্জব্রীজ পয়েন্টসহ পদ্মানদীতে প্রতিবছর তীব্র …

বাজে মেয়ে হয়েই থাকতে চান এই বাঙালী অভিনেত্রী অলিভিয়া…!!!

অলিভিয়া সরকার মানেই টেলিপর্দাতে চোখ ঝলসে দেওয়া লুক এবং জ্বালাময়ী উপস্থিতি। বিগত বেশ কয়েকটি ধারাবাহিকে …

অনার্সের ছাত্রীকে শিকলবন্দী, বাবা-মা গ্রেফতার

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় সিদ্ধিশ্বরী কলেজের অনার্সের এক ছাত্রীকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখায় বাবা-মাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। …

থানায় আসতে হবে না, ফোন দিন আপনার ঘরে পৌঁছে যাবে পুলিশ

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ছিনতাই ও যানজট নিরসনকল্পে অভিনব পদ্ধতিতে মহড়া শুরু করেছে সিদ্ধিরগঞ্জ …

ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীকে ভেন্টিলেটর দিয়ে ফেলে দিল পুলিশ সদস্য

মাদারীপুর পৌরসভার টিবি ক্লিনিক সড়কে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ঘরের ভেন্টিলেটর দিয়ে বাইরে ফেলে দেয়ার …

জঙ্গলে সন্তান প্রসব করেন এই মহিলা

আজকাল ওয়েবডেস্ক: দেশ এগোচ্ছে। ডিজিটাল ইন্ডিয়ার স্বপ্ন দেখছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কিন্তু এসবের পরেও দেশের …

টিউবওয়েলে পানি খেতে গিয়ে ধর্ষণ এর শিকার এক ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী গৃহবধূ !

রাজশাহী দুর্গাপুরে এক ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গত শুক্রবার দুপুরে উপজেলার ব্রহ্মপুর পুর্বপাড়া …

বিশেষ বার্তায় যা বললেন মমতা…!!

রবিবার ১৭তম লোকসভা নির্বাচন শেষ হয়েছে৷ নির্বাচনের বুথ ফেরত সমীক্ষাগুলি কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য …

মহিলাদের সম্পর্কে যে ১৫টি ভুল ভাবনা এখনই ত্যাগ করা উচিত পুরুষের…!!

মেয়েদের ব্যাপারে পুরুষমাত্রই কিছু ভুল জানেন ও ভাবেন। সব পুরুষই মনে করেন নারীকে তিনি সম্পূর্ণ …

রোজা রেখে দায়িত্ব পালন, রাজধানীতে ট্রাফিক পুলিশের মৃত্যু

রাজধানীর বিজয় সরণিতে রোজা রেখে দায়িত্ব পালনকালে ট্রাফিক কনস্টেবল আজিজুল ইসলাম (৫২) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে …

বেহুলা-লক্ষ্মীন্দরের কাহিনীকে হার মানানো রোমানা-রাজীবের মিলনের সমাপ্তি!

আনোয়ার হোসেন রাজীব, লৌহজং পাইলট উচ্চবিদ্যালয় থেকে ২০০২ সালে এসএসসি পাস, ২০০৪ সালে লৌহজং মহাবিদ্যালয় …

ঈশ্বরদী আশেপাশে এলাকাসহ অসহনীয় গরমে মানুষ অতিষ্ঠ

পাবনা প্রতিনিধি :গত তিন দিন ধরে পাবনা এলাকায় তাপমাত্রা ৩৯ডিগ্রীর উপরে থাকায় মৌসুমের মাঝারি তাপদাহ …

গাজীপুরের শ্রীপুরে মনিরা খাতুন (৬) ডেগের ভেতর শিশুর মরদেহ!

নিজস্ব প্রতিনিধি, গাজীপুরের শ্রীপুরে মনিরা খাতুন (৬) নামে এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার …

বেড়াতে গিয়ে মদপান, ফুফুসহ দুই বোনের মৃত্যু

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদপানে দুই বোনসহ তিন নারীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *